রবি. অক্টো ২৫, ২০২০

কোটালীপাড়ায় মাকে হত্যার দায়ে শিশুপূত্র কারাগারে

১ min read
কোটালীপাড়ায় মাকে হত্যার দায়ে শিশুপূত্র কারাগারে

কোটালীপাড়ায় মাকে হত্যার দায়ে শিশুপূত্র কারাগারে

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : মাকে হত্যার পর আগুনে পুড়িয়ে ভস্ম বিলের পানিতে ভাসিয়ে দিয়েছে এক শিশুপূত্র । ঘটনাটি ঘটেছে জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার কালিকাবাড়ী গ্রামে। জেলা পুলিশ মাতৃহন্তারক ছেলে আকাশকে গত ২৪ সেপ্টেম্বর তারিখে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করেছে গত ২৫ সেপ্টেম্বর বিকালে ।

ইতিমধ্যে জেলা পুলিশ প্রেস ব্রিফিং করে সাংবাদিকদের জানিয়েছে ওই গ্রামের মনোরঞ্জন পান্ডের মানসিক ভারসাম্যহীন স্ত্রী হাসি রানী পান্ডেকে (৩৫) গত ২৭ জুন তারিখে ছেলে আকাশ পান্ডে হত্যা করার পর পুড়িয়ে দিয়ে ছাই বিলের পানিতে ভাসিয়ে দিয়েছে। এ ঘটনা ছেলে স্বীকার করেছে। ঘটনার দিন রাত সাড়ে দশটার দিকে আকাশ মায়ের কাছে ভাত খেতে চাইলে হাসি রানী পান্ডে ছেলের দিকে প্লেট ছুড়ে মারে এবং বটি দিয়ে কোপ দিতে উদ্যত হয়।

এসময় আকাশ পান্ডে (১৬) পাশে থাকা জ¦ালানী কাঠ দিয়ে মায়ের মাথায় আঘাত করে। এতে মা হাসি রানীর মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর আকাশ ঘরে থাকা কেরোসিন তেল ও মৃত মাকে কিছু দুর ( প্রায় ৪০ ফিট) কোলে করে এবং কিছু দুর (প্রায় ৬০০ মিটার) নৌকায় করে নিয়ে যায়। সেখানে পূর্ব হতে রাখা জনৈক লোকের শুকনো জ¦ালানী কাঠের উপর মৃত মাকে রেখে আগুন জালিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

আগুন নিভে গেলে সে মৃতের ভস্ম বিলের পানিতে ভাসিয়ে দিয়ে বাড়ী ফিরে এসে গোসল করে ঘুমিয়ে পড়ে। পরদিন সকালে মনোরঞ্জন পান্ডে ছেলে আকাশকে মা হাসি রানী কোথায় জিজ্ঞাসা করলে সে জানায় যে মা হয়তোবা নানাবাড়ী চলে গেছে। আগেও কয়েকবার হাসি রানী পান্ডে এভাবে কাউকে কিছু না বলেই পিত্রালয়ে চলে গিয়েছিল।

পরে মনোরঞ্জন পান্ডে শশুরবাড়ী গিয়ে স্ত্রীর খোঁজ করে। আকাশ পান্ডে কৌশলে পিতাকে দিয়ে বিভিন্ন স্থানে মায়ের সন্ধান চালায় এবং ৪ জনের বিরুদ্ধে প্রথমে অভিযোগ ও পরে জিডি করায়। এদিকে হাসি রানীর পিতা জুড়ান বাড়ৈ (৭৫) যৌতুকের কারনে মারপিট করে হত্যার অভিযোগে মেয়ে জামাই মনোরঞ্জনসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ ( সংশোধনী ২০০৩) এর ১১(ক)/৩০ ধারায়।

এসব ঘটনার প্রেক্ষিতে আকাশের আচরন সন্দেহজনক হলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার এক পর্যায়ে সে স্বীকার করে যে সেই তার মাকে হত্যা করে আগুনে পুড়িয়েছে।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *