জুলাই ২৭, ২০২১

যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার ব্রিটেন ও কানাডার নিষেধাজ্ঞায় মিয়ানমারের একাধিক জেনারেল

১ min read
যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার ব্রিটেন ও কানাডার নিষেধাজ্ঞায় মিয়ানমারের একাধিক জেনারেল

যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার ব্রিটেন ও কানাডার নিষেধাজ্ঞায় মিয়ানমারের একাধিক জেনারেল

নিউজ ডেস্ক: সামরিক অভ্যুত্থানের জেরে একের পর এক নিষেধাজ্ঞা আসছে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর উপর। যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার মিয়ানমারের বেশ কয়েকজন শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলো যুক্তরাজ্য ও কানাডা।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানে নেতৃত্বদানকারী তিন জেনারেলের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত ও ভ্রমণ নিষিদ্ধ করছে ব্রিটেন। অন্যদিকে, কানাডা ৯ জেনারেলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব বলেন, যুক্তরাজ্যের পাশাপাশি তাদের মিত্র দেশগুলোরও মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে দাঁড়ানো এবং দেশটির নাগরিকদের সুবিচার নিশ্চিত করা।

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের জনগোষ্ঠীর ওপর সহিংসতার জেরে আগে থেকেই দেশটির জেনারেল মিং অং হ্লাইং-এর ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে যুক্তরাজ্য।

দু’দেশের নতুন করে নিষেধাজ্ঞায় মিয়ানমারের সামরিক শাসকের পক্ষ থেকে কোন প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। গত সপ্তাহে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করা জান্তা সরকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র নেড প্রাইজ জানিয়েছেন, মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে তার দফতরের মন্ত্রী অ্যান্টোনি বিলি তিন দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন। নির্বাচিত সরকার উচ্ছেদ করে ক্ষমতা নেওয়া মিয়ানমারের জেনারেলদের ওপর ক্রমেই আন্তর্জাতিক চাপ বাড়ছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চিকে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতায় বসে সামরিক সরকার। সু চিসহ আইনপ্রণেতাদের গৃহবন্দি করা হয়েছে। এরপরই থেকে তার মুক্তির দাবি ও সামরিক বাহিনীকে ক্ষমতা ছাড়ার আহ্বান জানিয়ে বিক্ষোভ করে আসছে সাধারণ মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *