সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২১

মালিবাগ ফ্লাইওভারে ডাকাতির ঘটনায় ৯ ডাকাত গ্রেফতার, মালামাল উদ্ধার

১ min read

নিউজ ডেস্ক: ডাকাতি হওয়া পিকআপ ও মালামাল উদ্ধারসহ ৯ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে শাহজাহানপুর থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলো- মোঃ সুমন ওরফে ডন মিয়া (৩২), কালাম হোসেন ওরফে কামাল (২৬), মোঃ নোমান ওরফে রুমন ওরফে রমান (২৬), মোঃ জুম্মন হোসেন (২৬), মোঃ শামীম মিয়া (২৮), মোঃ আলী হোসেন ওরফে ফয়সাল (২৮), মোঃ শাওন আহম্মেদ জয় (২৬), মোঃ ফারুক ইসলাম (৩০) ও মোঃ জিহাদ মিয়া (২০)।

গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি মিনি পিকআপ ও তিনটি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে। সেই সাথে ডাকাতি হওয়া একটি পিকআপ, মেলামাইন সামগ্রী ও ৩টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর’১৯ রাত ৩.৪০ টায় শাহজাহানপুর থানাথীন মালিবাগ ফ্লাইওভারের ৩য় তলায় অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন ডাকাত একটি পিকআপ আটকিয়ে গাড়ির চালক ও হেলপারকে চাকু দিয়ে কুপিয়ে জখম করেন। এরপর তাদের কাছ থেকে তিনটি মোবাইল ফোন ও মেলামাইন সামগ্রী বোঝাই পিকআপটি ডাকাতি করে নিয়ে যায়। এ সংক্রান্তে গত ১ অক্টোবর’১৯ পিকআপের ড্রাইভার বাদি হয়ে শাহজাহানপুর থানায় একটি মামলা রুজু করেন।

মামলার তদন্তকালে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে প্রথমে গত ৩ অক্টাবর’১৯ রাজধানীর মুগদা থেকে মোঃ সুমন ওরফে ডন মিয়া ও ধোলাইখাল থেকে কালাম হোসেন ওরফে কামালকে গ্রেফতার করা হয়।

তাদের জিজ্ঞাসাবাদে দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ৪ অক্টাবর’১৯ বাবুবাজার ব্রীজ এলাকা থেকে ডাকাত দলের আরো তিন সদস্য মোঃ নোমান ওরফে রুমন ওরফে রমান, মোঃ জুম্মন হোসেন ও মোঃ শামীম মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত থেকে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত একটি মিনি পিকআপ ও তিনটি চাকু উদ্ধার করা হয়।

গত ৪ অক্টাবর’১৯ সুমন ও কালামকে এবং ৫ অক্টাবর’১৯ নোমান, জুম্মন ও শামীমদেরকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।

১০ অক্টাবর’১৯ রাজধানীর চানখারপুল ও যাত্রাবাড়ীর কাজলার পার এলাকায় অভিযান চালিয়ে ডাকাত দলের আরো চার সদস্য মোঃ আলী হোসেন ওরফে ফয়সাল, মোঃ শাওন আহম্মেদ জয়, মোঃ ফারুক ইসলাম ও মোঃ জিহাদ মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাদের দেয়া তথ্য মতে মাতুয়াইল থেকে লুন্ঠিত পিকআপ, কিশোরগঞ্জ থেকে লুন্ঠিত সকল মেলামাইন সামগ্রী ও ৩টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *