জুলাই ২৮, ২০২১

বিচারপতিকে আপত্তিকর উপহার পাঠিয়ে আলোচনায় নারী

১ min read
বিচারপতিকে আপত্তিকর উপহার পাঠিয়ে আলোচনায় নারী

বিচারপতিকে আপত্তিকর উপহার পাঠিয়ে আলোচনায় নারী

নিউজ ডেস্ক: ঘটনাটি ভারতের। কিছুদিন আগে দু’টি যৌন নির্যাতনের মামলায় তার রায় নিয়ে বিতর্ক দেখা গিয়েছিল সে দেশে। এবার বম্বে হাইকোর্টের সেই অতিরিক্ত বিচারপতি পুষ্পা বি গানেদিওয়ালাকে ওই রায়ের প্রতিবাদে ১৫০টি কন্ডোম পাঠালেন গুজরাটের এক নারী। পাশাপাশি, ওই বিচারপতিকে সাসপেন্ড করে দেওয়ারও দাবি তুলেছেন।

জানা গেছে, গুজরাটের ওই নারীর নাম দেবশ্রী ত্রিবেদী। তিনি একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক। সম্প্রতি বম্বে হাইকোর্টের ওই রায়ের পর ক্ষোভপ্রকাশ করেন তিনি। এরপরই বিচারক গানেদিওয়ালার চেম্বার, বম্বে হাইকোর্টের নাগপুর বেঞ্চের রেজিস্ট্রি অফিস-সহ ১২ জায়গায় ওই কনডোম পাঠিয়েছেন দেবশ্রী।

পরবর্তীতে একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান, “আমি অবিচার সহ্য করতে পারি না। এক নাবালিকা বিচারপতি পুষ্পা বি গানেদিওয়ালার জন্য বিচার পেল না। আমার দাবি ওই বিচারপতিকে সাসপেন্ড করে দেওয়া উচিত।”
তিনি আরও বলেন, “আমার মনে হয় একজন নারী হিসেবে আমি কোনও ভুল করিনি। এজন্য আমার কোনও অপরাধবোধ নেই। নারীদের সবসময় নিজেদের অধিকারের জন্য লড়াই করা উচিত। গানেদিওয়ালার এই রায়ের পর মেয়েদের পোশাকের উপর থেকে যখন তখন হেনস্তা করতে পারবে পুরুষরা।

যদিও এই ঘটনায় হয়তো শাস্তির মুখে পড়বেন না দেবশ্রী। কারণ নাগপুর বেঞ্চের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে জানানো হয়েছে, তারা এই ধরনের কোনও প্যাকেটই পাননি। তবে নাগপুর বার অ্যাসোসিয়েশনের এক সিনিয়র অ্যাডভোকেট ওই নারীর শাস্তির দাবি তুলেছেন। এর আগে একটি যৌন নিগ্রহের মামলায় পুষ্পা গানেদিওয়ালা জানিয়েছিলেন, পোশাকের উপর নাবালিকার স্তনে হাত দিলে পকসো আইনের আওতায় তা যৌননিগ্রহ হিসেবে গ্রাহ্য হবে না। যৌনতামূলক কার্যকলাপের অভিপ্রায়ে ত্বকের সঙ্গে ত্বকের সংস্পর্শ হলে, তবেই তা যৌন নিগ্রহ হিসেবে প্রমাণিত হবে। পরে সেই রায়ে স্থগিতাদেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *