সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১

বাংলাদেশের প্রথম টেস্টের কথা ভুলেননি সৌরভ

১ min read

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশের প্রথম টেস্টের কথা এখনো ভুলতে পারেননি সৌরভ গাঙ্গুলী। তথ্যসূত্র বলছে, ২০০০ সালে প্রথম টেস্টে ভারতের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। মজার ব্যাপার হচ্ছে সে ম্যাচেই ভারতের টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক ঘটেছিল সৌরভ গাঙ্গুলীর। ১৯ বছর পর সেই সৌরভ এখন তার দেশের ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি।

নভেম্বরে বাংলাদেশ দলের ভারত সফর নিয়ে বিশেষ এক আয়োজনই করতে যাচ্ছেন নতুন এই বিসিসিআই সভাপতি। বাংলাদেশের হয়ে প্রথম টেস্ট খেলা ক্রিকেটারদের ইডেন গার্ডেনসে সংবর্ধনা দেবেন সৌরভ। শুধু তাই নয়, ইডেন টেস্টে ঘণ্টা বাজিয়ে দিনের খেলা শুরু করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ইডেন টেস্টের প্রথম দিনে শেখ হাসিনার উপস্থিত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সৌরভ নিজেই। খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা দেওয়ার বিষয়টিও বলেছেন তিনিই, ‘বাংলাদেশের খেলা প্রথম টেস্টে খেলা সব ক্রিকেটারকে আমরা আমন্ত্রণ জানাব। এটা ছিল ভারতের বিপক্ষে। আমি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে এ নিয়ে লিখব এবং বিসিসিআই সভাপতি হিসেবে ব্যক্তিগতভাবে সে ম্যাচে খেলা ভারতীয় দলকে লিখব। প্রথম দিনের খেলা শেষে আমরা সংক্ষিপ্ত একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করব।’ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করে বিসিসিআইয়ের এ সভাপতি বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ২২ নভেম্বর আসবেন। সবকিছু ঠিক থাকলে তিনি টেস্টের (খেলা শুরুর) ঘণ্টা বাজাবেন।’

ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ১৯ বছর আগে নভেম্বরেই প্রথম টেস্টে ভারতের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। তার আগে ভারতের ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সৌরভ। টেস্টেও নেতৃত্ব দিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে নতুন এক যুগের সৃষ্টি করেছিলেন তিনি। আর বাংলাদেশের জন্য সে ম্যাচটা ছিল এমনিতেই ঐতিহাসিক। নাইমুর রহমানের দল অভিষেক টেস্টে ৯ উইকেটে হারলেও চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে আমিনুল ইসলামের সেঞ্চুরি। সে দলে আরও ছিলেন মেহরাব হোসেন, শাহরিয়ার হোসেন, হাবিবুল বাশার, মোহাম্মদ রফিক, আকরাম খান, আল শাহরিয়ার, খালেদ মাসুদ, হাসিবুল হোসেন ও রঞ্জন দাস ( নাম বদলে বর্তমানে মাহমুদুল হাসান)।

ভারতের মাটিতে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি ও দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষে ১৪ নভেম্বর ইন্দোরে গড়াবে প্রথম টেস্ট। কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে ২২ নভেম্বর থেকে শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট। বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেওয়ায় ভারত সফর নিয়ে আর কোনো অনিশ্চয়তা নেই। বাংলাদেশের এ সফর নিয়ে আয়োজনকে পূর্ণাঙ্গ রূপ দিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও উপস্থিত থাকতে ব্যক্তিগতভাবে আমন্ত্রণ জানাবেন সৌরভ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *