সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২১

‘বাংলাদেশের পুনরুত্থানের হাতিয়ার তথ্যপ্রযুক্তি’

১ min read

নিউজ ডেস্ক: চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের বিশ্বে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমেই বাংলাদেশের পুনরুত্থান ঘটছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে তার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় এর মূল দিকনির্দেশক বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকায় র‍্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলের বলরুমে দেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে উদ্যোক্তাদের প্রণোদনা দিতে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) আয়োজিত ‘বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ড ২০১৯’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘অতীতে কৃষিনির্ভর বিশ্বে বাংলাদেশ ছিল সমৃদ্ধ অঞ্চল। সেই কারণেই ডাচ-ওলন্দাজ-ব্রিটিশ-বর্গীরা বারবার এখানে হানা দিয়েছে। কিন্তু শিল্প বিপ্লবের শুরু থেকেই প্রথম তিন শিল্প বিপ্লবে বাংলাদেশ পিছিয়ে পড়ার কারণে কৃষিযুগের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি হারায়।’

কিন্তু, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব বা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির প্রসারের যুগে আবার জেগে উঠছে বাংলাদেশ- উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান বলেন, ‘দেশের কেউ যখন ভাবেনি, তখন সজীব ওয়াজেদ জয় তথ্যপ্রযুক্তি বিপ্লবের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবার পরিকল্পনা করেছেন। আর তা রূপায়ণে প্রধানমন্ত্রী দেখেছেন ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ গড়ার স্বপ্ন।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন সেবাখাতের দিকে তাকালে বোঝা যায়, ডিজিটাল বাংলাদেশ আজ আর স্বপ্ন নয়, বাস্তব।’

বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ও বিভিন্ন বিভাগে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। বেসিস পরিচালক দিদারুল আলম সানি এবং বেসিস ও স্পন্সর প্রতিষ্ঠান আইপিডিসি’র কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, শেখ হাসিনার সরকারের অঙ্গীকার অনুযায়ী জনপ্রশাসনের প্রতিটি ক্ষেত্রই ডিজিটালাইজড করার প্রক্রিয়া চলছে।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের তত্ত্বাবধানে দেশ আজ স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ হতে চলেছে।

অনুষ্ঠানে গত বছর জমা হওয়া দেশব্যাপী বিভিন্ন সংস্থার ১১৭৫টি প্রকল্প থেকে বাছাই করে ৩৫ বিভাগে ৬৯টি পুরস্কার বিজয়ীদের হাতে তুলে দেয়া হয়। পুরস্কারপ্রাপ্তদের মধ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলও রয়েছে।

বিজয়ীরাসহ ৮০ সদস্যের বাংলাদেশ দল প্রথমবারের মতো সবচেয়ে বড় দল হিসেবে ভিয়েতনামের হ্যানয়ে এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি এলায়েন্স-এপিকটা অ্যাওয়ার্ড প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *