বঙ্গোপসাগরে নিরাপত্তার জন্য বাংলাদেশকে অর্থ দিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র


জবাবদিহি ডেস্ক : বঙ্গোপসাগরে নিরাপত্তার জন্য পদক্ষেপ নিতে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপকে অর্থ দিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র।

এজন্য দেশটির সংসদ কংগ্রেসের কাছে ৩০ মিলিয়ন ডলার চেয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে চীনের প্রভাব কমাতে বঙ্গোপসাগরে নজর রাখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতের সংবাদপত্র বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।

অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং পারস্পরিক সংযোগ বৃদ্ধিতে আঞ্চলিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য এরইমধ্যে ৬৪ মিলিয়ন ডলার ঘোষণা করেছে ট্রাম্প প্রশাসন।

‘বঙ্গোপসাগর’ নিরাপত্তা পদক্ষেপের জন্য কংগ্রেসের কাছে আলাদাভাবে ৩০ মিলিয়ন ডলার চাওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যমটি।

বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাউথ অ্যান্ড সেন্ট্রাল এশিয়ান অ্যাফেয়ার্সের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা অ্যালিস জি ওয়েলস এক বিবৃতিতে দেশটির এশিয়া, দ্য প্যাসিফিক অ্যান্ড ননপ্রলিফারেশন বিষয়ক হাউজ ফরেন অ্যাফেয়ার্স সাবকমিটিকে এই বিষয়ে জানান।

তিনি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নতুন নিরাপত্তা সহযোগিতা কর্মসূচি বঙ্গোপসাগর ইনিশিয়েটিভ এর জন্য ৩০ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দ দেয়ার জন্য অনুরোধ করছি আমরা।

তিনি বলেন, এই অর্থ বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপকে দেয়া হবে দেশগুলোর সামুদ্রিক ও সীমান্তবর্তী নিরাপত্তা সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য।

ওয়েলস বলেন, ইন্দো-প্যাসিফিক স্ট্র্যাটেজিকে সহায়তা করতে অতিরিক্ত অর্থ সংগ্রহের বিভিন্ন উপায় খুঁজছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সব সম্ভব হলে এ নিয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনাও করতে রাজি আমরা।

তিনি বলেন, ২০২০ অর্থবছরে দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা সহযোগিতা এবং ভারত ও মালদ্বীপের উন্নয়নের জন্য ৪৬৮ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দ দেয়ার অনুরোধ করছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

অবশ্য এই অর্থ ২০১৯ অর্থবছরের দ্বিগুণ বলেও উল্লেখ করেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাউথ অ্যান্ড সেন্ট্রাল এশিয়ান অ্যাফেয়ার্সের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ওয়েলস।

0 30

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
আজকের সংবাদ শিরোনাম :
%d bloggers like this: