আগস্ট ৩, ২০২১

‘নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখে পরমাণু সমঝোতা রক্ষার দাবি অবান্তর’

‘নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখে পরমাণু সমঝোতা রক্ষার দাবি অবান্তর’

‘নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখে পরমাণু সমঝোতা রক্ষার দাবি অবান্তর’

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলের সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে পরমাণু সমঝোতা প্রশ্নে ইউরোপীয় দেশগুলোর নেতিবাচক ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, সাবেক মার্কিন প্রশাসন ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেআইনিভাবে বেরিয়ে যাওয়ার পর ইউরোপীয় দেশগুলো এ ব্যাপারে শক্তিশালী কোনো ভূমিকা রাখতে ব্যর্থ হয়েছে।

রুহানি বলেন, ইউরোপীয় দেশগুলো যদি সত্যিকার অর্থে এই সমঝোতা রক্ষা করতে চায় তাহলে এতে ইরানকে দেয়া প্রতিশ্রুতিগুলো অবিলম্বে বাস্তবায়ন করতে হবে। তিনি নতুন কোনো বিষয় পরমাণু সমঝোতায় অন্তর্ভুক্ত করাকে ‘অসম্ভব’ উল্লেখ করে বলেন, ইরান ও বিশ্বের ছয় বৃহৎ শক্তি দীর্ঘদিনের আলোচনা শেষে এই সমঝোতা অর্জন করেছে এবং জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবের মাধ্যমে এটি আন্তর্জাতিক আইনে পরিণত হয়েছে। কাজেই এটির গঠনকাঠামোয় কোনো পরিবর্তন আনা সম্ভব নয়।

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, পরমাণু সমঝোতার ভিত্তিতে তার দেশের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেই নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকা অবস্থায় কোন যুক্তিতে এই সমঝোতা মেনে চলবে ইরান? তিনি বলেন, আমেরিকাকে কার্যকরভাবে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে পরমাণু সমঝোতায় ফিরে আসতে হবে। তিনি বলেন, এ কাজ করা সম্ভব হলেই কেবল তেহরান পরমাণু সমঝোতায় দেয়া নিজের প্রতিশ্রুতি পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করবে।

টেলিফোনালাপে অ্যাঙ্গেলা মার্কেল একটি আন্তর্জাতিক চুক্তি হিসেবে পরমাণু সমঝোতা রক্ষা করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এ সংক্রান্ত চলমান অচলাবস্থা আলোচনার মাধ্যমে নিরসন করতে হবে। তিনি মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠায় সব দেশের মধ্যে সহযোগিতার আহ্বান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *