আগস্ট ৫, ২০২১

চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চুরির মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে মানববন্ধন

১ min read
চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চুরির মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে মানববন্ধন

চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চুরির মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে মানববন্ধন

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি : মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার দেহুন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা কামরুজ্জামান সঞ্জুর বিরুদ্ধে একটি পরিত্যক্ত ঘরের দরজা-জানালা চুরির মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

দুপুরে দেহুন্দা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন কিশোরগঞ্জ-চামড়াবন্দর আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে প্রায় এক কিলোমিটার এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নেন কয়েক হাজার মানুষ। এলাকার জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিকসহ বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা এতে অংশ নেন। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

জানা গেছে, দেহুন্দা ইউনিয়নের ভাটিয়া বাজারে অবস্থিত কৃষি বিভাগের একটি পরিত্যাক্ত বাড়ি থেকে ২০ কেজি লোহার রড, চারটি কাঠের দরজা ও ৫টি জানালা চুরি করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি করিমগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন, কৃষি বিভাগের ভাটিয়া ব¬কের উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা মো. শাহাদাত হোসেন।

মামলাটিতে দেহুন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে প্রধান আসামিসহ ৫ জনকে আসামি করা হয়। মামলার অপর আসামিরা হচ্ছেন, মো, সেলিম (৪০), রুবেল (৪০), দানু মিয়া (৩৬) ও হবি (৩৬)।

মামলার এজাহারে বলা হয়, গত ১১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টা থেকে ৯টার মধ্যে কোন এক সময় আসামিরা সীড স্টোরের ভেতরে রাখা ২০ কেজি লোহার রড, চারটি কাঠের দরজা ও ৫টি কাঠের জানালা চুরি করে নিয়ে যায়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, কিশোরগঞ্জ-করিমগঞ্জ সড়ক বর্ধিত করনের কাজ চলছে। রাস্তার পাশে অবস্থিত কৃষি বিভাগের পরিত্যক্ত ওই ঘরটি ভেঙ্গে ফেলা হবে।

ঘটনার দিন ঘর ভেঙ্গে ফেলার খবরে এলাকাবাসী ওই ঘরের পুরনো জিনিসপত্র নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে ইউপি চেয়ারমান তার পরিষদের চৌকিদার মো. সিরাজ মিয়াকে পুরনো ২০ কেজি রোড তার জিম্মায় রাখার নির্দেশ দেন। চৌকিদার সিরাজ মিয়া রডগুলো ইউনিয়ন পরিষদের জমা রাখেন।

বিষয়টি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাকে টেলিফোনে অবহিত করেন চেয়ারম্যান সঞ্জু। কিন্তু রহস্যজনক কারনে চেয়ারম্যানের সাথে এ বিষয়ে কোন কথা না বলে তার বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা চুরির মামলা দায়ের করা হয়।

এ ঘটনার প্রতিবাদে আন্দোলনে নামে এলাকাবাসী। এ সময় বক্তৃতা করেন, ভাটিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম দিপু, দেহুন্দা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মো. খুর্শেদ উদ্দিন, দেহুন্দা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুম উদ্দিন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের ফকির তারু, দেহুন্দা ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত আসনের মেম্বার রুমা, ঝর্ণা প্রমূখ।

মানববন্ধন থেকে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক চুরির মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার ও দায়িদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান বক্তারা।

দেহুন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সঞ্জু বলেন, নিজের টাকায় জমি কিনে দিয়ে ইউনিয়ন পরিণদের অস্থায়ি কার্যালয় করেছি। আর আমার বিরুদ্ধে ২০ কেজি পুরাতন রড চুরির মামলা হলো। এটা দু:খ্যজনক। এলাকার কয়েকজন দুর্নীতিবাজ ব্যক্তির বিরুদ্ধে অবস্থায় নেয়ায় এ মিথ্যা ষড়যন্ত্রমূলক মামলা করা হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

এ ব্যাপারে করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মমিনুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে মামলাটি রুজু করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সঠিক তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *