চট্টগ্রাম বন্দরে কন্টেইনার ওঠানামার কাজ শুরু


চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম বন্দরে বিভিন্ন জেটিতে জাহাজে কন্টেইনার ওঠানামার কাজ পুরোদমে শুরু হয়েছে। ঈদুল ফিতরের দিন সকাল ৮টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বন্ধ থাকার পর বৃহস্পতিবার পুরোদমে কন্টেইনার ওঠানামার চলছে।
চট্টগ্রাম বন্দরের পরিচালক (পরিবহন) এনামুল করিম জানান, খালাস কন্টেইনার বন্দর ইয়ার্ডের পাশাপাশি অফ-ডকেও নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। কিন্তু সিএন্ডএফ এজেন্টরা যোগ না দেওয়ায় এবং পরিবহন ব্যবস্থা না থাকায় আমদানি পণ্য খালাস প্রায় বন্ধ রয়েছে।
এনামুল করিম বলেন, ‘বুধবার রাতে কিছু কাজ হলেও ঈদের বন্ধের পর বন্দরে মূলত: কাজ শুরু হয়েছে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার শিফট থেকে। চট্টগ্রাম বন্দরে বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত ১৬টি জাহাজ জেটিতে নোঙ্গর করেছে। এর মধ্যে ১১টি জাহাজ আমদানি পণ্য নিয়ে বন্দরে এসেছে। ৫টি জাহাজ রফতানি পণ্যবোঝাই কন্টেনার নেওয়ার জন্য এসেছে। ১৬টি জাহাজেই কন্টেইনার ওঠানামা প্রায় স্বাভাবিক আছে। যেহেতু শ্রমিক কম, ধীরগতি একটু থাকবে। কন্টেইনার অফ-ডকেও আমরা পাঠাচ্ছি।’
তিনি বলেন, ‘বন্দরের শ্রমিকরা কাজে যোগ দিলেও পরিবহন সংকটে আমদানি পণ্য খালাস হচ্ছে না। এতে বন্দরে ও বিভিন্ন বেসরকারি ডিপোতে কন্টেইনার জটের আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে রফতানি পণ্যবোঝাই পরিবহনের বন্দরে প্রবেশ এবং কন্টেইনার জাহাজীকরণ স্বাভাবিক আছে। এদিকে অফ-ডকের পাশাপাশি খালাস করা কন্টেইনার জমে যাচ্ছে বন্দর ইয়ার্ডে।’
এনামুল করিম জানান, ‘চট্টগ্রাম বন্দরের অভ্যন্তরে একসঙ্গে ৪৯ হাজার কন্টেইনার রাখা সম্ভব। এখন প্রায় ৩৮ হাজারের মতো কন্টেনার আছে। সপ্তাহজুড়ে কন্টেইনার খালাসে ধীরগতি থাকলে জট তৈরি হতে পারে।’
বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মোহাম্মদ ওমর ফারুক জানান, ‘কনটেইনার জট কমাতে বন্দর কর্তৃপক্ষ সবসময় ডেলিভারি দিতে প্রস্তুত। সিএন্ডএফ এজেন্টসহ সংশ্লিষ্টদের ঈদের ছুটিতে পণ্য ডেলিভারি নিতে বলা হয়েছে। কিন্তু ছুটিতে সিএন্ডএফ এজেন্টরা পণ্য নিতে আগ্রহী না হওয়ায় বন্দরের ওপর চাপ পড়ে।’

0 30

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আজকের সংবাদ শিরোনাম :
%d bloggers like this: