কাদের সাহেব মন্ত্রিত্ব রক্ষার্থে সত্যটা বলতে পারবেন না: রিজভী


জবাবদিহি রিপোর্ট : আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাহেব ভিনগ্রহের বাসিন্দা বা এলিয়েন নন। কিন্তু তিনি আসল সত্যটা বলতে পারবেন না মন্ত্রীত্ব রক্ষার স্বার্থে।বললেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। মঙ্গলবার দুপুরে (৪ জুন) রাজধানীর নয়া পল্টনে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ অভিযোগ করেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, দেশের বিচার ব্যবস্থা কি স্বাধীন, কাদের সাহেব? যে দেশের প্রধান বিচারপতিকে বন্দুকের নলের মুখে দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়, সেখানে কি ন্যায় বিচার পাওয়ার সুযোগ থাকে? যে দেশের বিচারককে ন্যায়বিচারের রায় দেওয়ার পর রাতের আঁধারে পালিয়ে দেশত্যাগ করতে হয়, সেদেশে কি মানুষের ন্যায়বিচার পাওয়ার অধিকার আছে? আইন, আদালত, প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সবইতো প্রধানমন্ত্রীর হাতে বন্দি। আপনার নেত্রী শেখ হাসিনা লন্ডনে বসে যে স্বীকারোক্তি ও হিংসাত্মক ঘোষণা দিয়েছেন, তা সারাদেশের মানুষসহ বিশ্ববাসী শুনেছে। আপনিও এখন সে কথাই বলছেন।

রুহুল কবির রিজভী আহমেদ অভিযোগ করেছেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের মধ্য দিয়েই প্রমাণিত খালেদা জিয়াকে সরকারের নির্দেশেই আটকে রাখা হয়েছে।

রিজভী বলেন, গত কয়েকদিন যাবত সরকারের মন্ত্রী ও কতিপয় নেতা বিএনপিকে উদ্দেশ করে লাগামছাড়া বক্তৃতা দিচ্ছেন। ঈদ-উল ফিতরের প্রাক্কালে খুব বিস্মিত হচ্ছি, তাদের কথা শুনে। তারা কথার তাল-লয় হারিয়ে ফেলছেন বলে অনুমিত হচ্ছে। ওবায়দুল কাদেরের এসব কথা শুনে আবারও সুপ্রমাণিত হলো যে, খালেদা জিয়া আইনি প্রক্রিয়ায় নয়, অবৈধ আওয়ামী সরকারের নির্দেশেই কারাগারে বন্দি।

রিজভী বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজেই স্বীকার করেছেন তার ইচ্ছা ও প্রতিহিংসায় খালেদা জিয়ার বাঁচা-মরার শর্ত। অন্যকোনও কারণে নয় শেখ হাসিনা প্রতিহিংসা পূরণে দেশনেত্রী খালেদা জিয়া আজ কারাগারে। কেবল তাই নয়, বাড়াবাড়ি করলে সারাজীবন খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখা হবে— ঘোষণা দিয়ে লন্ডন থেকে দেশে ফিরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশনেত্রীকে কেরানীগঞ্জ কারাগারের নির্জন প্রকোষ্ঠে বন্দি রাখার পদক্ষেপ নিয়েছেন। তার জামিনযোগ্য জামিন বন্ধ রেখেছেন।

কাদেরের প্রতি রিজভী বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেব, আপনার নেত্রীকে জিজ্ঞেস করবেন কি, তিনি আর কতদিন ক্ষমতালিপ্সায় বাংলাদেশের প্রাণ প্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়াকে বন্দি রেখে শাস্তি দেবেন? আর কতদিন লাগবে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে? দেশের প্রতিটি মানুষ জানেন,আইনি লড়াইয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না। কারণ, আইনি প্রক্রিয়া শেখ হাসিনার আঁচলে বন্দি।

0 30

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আজকের সংবাদ শিরোনাম :
%d bloggers like this: