সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১

এবার মুসলিমদের জন্য শিশু শাকিরা নিয়ে এলো হেল্পলাইন

১ min read

নিউজ ডেস্ক: সবারই কম বেশি জানা পেনি অ্যাপিল যুক্তরাজ্যের একটি ইসলামি দাতব্য সংস্থা। সম্প্রতি তারা ১১ বছরের শিশু শাকিরা রহমানকে পেনি অ্যাপিলের সিইও নিয়োগ করেছে। মুসলিমদের মানসিক ও স্বাস্থ্য সংরক্ষণ ও সমাধানই পেনি অ্যাপিল হেল্পলাইন-এর প্রধান কাজ। প্রতিষ্ঠানটির ছোট্ট সিইও শাকিরা রহমান।

পেনি অ্যাপিল-এর কাছে যে কোনো মুসলিম তাদের সমস্যা জানালে এ দাতব্য হেল্পলাইন সংস্থাটি তা সমাধানে পরামর্শসহ সার্বিক কাজ করে যাচ্ছে। প্রতিদিন বিকেল ৪টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলে শাকিরার এ হেল্পলাইন সেবা। যোগাযোগের কাজে তার মা তাকে সার্বিক সহযোগিতা করছেন।

১১ বছরের শিশু খুদে সিইও বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের চাপ, ক্লাসরুমে ঝগড়া ইত্যাদি সমস্যা সম্পর্কে কথা বলার জন্য আমার মা রয়েছেন। কিন্তু স্কুলে আমার অনেক বন্ধুই রয়েছেন যারা তাদের পরিবারের সাথে এসব বিষয়ে কথা বলতে পারেনা। তাই আমার মনে হয় ‘পেনি অ্যাপিল’ ইসলামি দাতব্য সংস্থাটি আমার বন্ধুদের জন্য এবং যুক্তরাজ্য জুড়ে অন্যান্য ছেলে-মেয়েদের জন্য সহায়ক হবে।’

তাছাড়া ১১ থেকে ২৪ বছর বয়সী মুসলিম তরুণদের কাউন্সিলিংয়ের জন্য এই এমওয়াই (মুসলিম ইয়োথ) ফ্রি হেল্পলাইন কাজ করছে। ব্রিটেনজুড়ে গ্রাহকদের গোপনীয়তা রক্ষা করে এ হেল্পলাইন থেকে সেবা দেয়া হয় বলেও জানায় এমওয়াই কর্তৃপক্ষ।

মুসলিম তুরুণদের জন্য প্রতিষ্ঠিত ‘এমওয়াই হেল্পলাইন’-এর যোগাযোগের নাম্বার হলো ০৮০৮ ৮০২ ৭৭৭৭।

মুসলিম তরুণদের জন্য এ এমওয়াই হেল্পলাইন কাউন্সিলিংয়ের জন্য সংস্থাটির প্রথম উদ্যোগ নয়। এর আগে কানাডা কেন্দ্রিক নাশিয়া আরবি ভাষায় একই ধরনের কাউন্সিলিং সেবা দান করে আসছে, যা গত কয়েক বছরে ১৮ হাজারের মতো ঘটনার কাউন্সিলিং করেছে।

পেনি অ্যাপিল বিশ্বের ৩০-এরও বেশি সংকটগ্রস্ত দেশের সমস্যার সমাধানে কাজ করে যাচ্ছে। ২০০৯ সালে উদ্যোক্তা আদেম ইউনিস কর্তৃক পেনি অ্যাপিল আন্তর্জাতিক মানবতাবাদী দাতব্য পুরস্কার লাভ করে। বিশ্বব্যাপী পেনি অ্যাপিল দ্রুত অসংখ্য জীবন ও সম্প্রদায়কে দারিদ্র্যতামুক্ত সমাজ গঠনে কাজ করেছে। বিশ্বের অনেক খ্যাতিমান দাবত্য সংস্থার সঙ্গে কাজ করছে ছোট্ট সিইও শাকিরা রহমান।

উল্লেখ্য যে, শাকিরা রহমান গত ১২ অক্টোবর জিবি সম্মেলন ২০১৯-এ লিসেস্টার সিটি এফসি স্টেডিয়ামে মুসলিম কাউন্সিলে বক্তব্য রাখেন। এবারের জিবি সম্মেলনের প্রতিপাদ্য ছিল- ‘আমাদের মসজিদগুলো আমাদের ভবিষ্যৎ’। শাকিরা যুক্তরাজ্য ও তার আশপাশের মসজিদগুলোর রক্ষণাবেক্ষণ এবং মুসলিম তরুণদের যে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা গ্রহণ করা প্রয়োজন সে সম্পর্কে তার মতামত তুলে ধরেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *