সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১

ইউনিভার্সিটি অডিটোরিয়ামে বেস্ট পারফরমেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ অনুষ্ঠিত

১ min read

নিউজ ডেস্ক :মঙ্গলবার ৮ অক্টোবর ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট সোসাইটির আয়োজনে মালয়েশিয়ার আইএনটিআই ইন্টা:ইউনিভার্সিটি অডিটোরিয়ামে বেস্ট পারফরমেন্স অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত হয়ে গেল।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন মালদ্বীপের দূতাবাসের সচিব আবদুল ওয়াজ, ব্রুনাই দারুসালামের দূতাবাসের শিক্ষা সচিব সোফান আফান্দি, জাপানের দূতাবাসের তথ্য পরিসেবা উপদেষ্টা, গবেষক মি. তাকায়াসু গোটো, আইএনটিআয়ের আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড.জোসেফ লি, আইএনটিআই নিলাই কলেজের চিফ এক্সিকিউটিভ মি. সং কূক থং, ইন্টার ন্যাশনাল স্টুডেন্ট সার্ভিস বিভাগের প্রধান, অ্যাল্যান্ড লাইবাউ, আন্তর্জাতিক সাপোর্ট বিভাগের প্রধান তাফারা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে অনেক ইউনিভার্সিটিতে অধ্যয়নরত মালয়েশিয়া, বাংলাদেশ, জাপান, গাম্বিয়া, জিম্বাবুয়ে, ঘানা, চীন, ব্রুনাই, পাকিস্তান, ইয়েমেন, সৌদি আরব, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, কোরিয়াসহ প্রায় ১৫টি দেশের শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়ে নাচ- গান, ফ্যাশনশো ও অভিনয়ের মাধ্যমে যার যার দেশের ইতিহাস ঐতিহ্য গুলো তারা তুলে ধরেন।
এবার বেস্ট পারফরমেন্স ইন্দোনেশিয়ার, বেস্ট বুথ ইয়েমেনের, মোস্ট পপোলার আফ্রিকার ও বেষ্ট ড্রেস কেনিয়াসহ মোট চারটি দেশের শিক্ষার্থীরা জয়ী হয়েছেন ।

বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ইউনিভার্সিটির আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট বিভাগের প্রধান অ্যাল্যান্ড লাইবাউ।

এর আগে ২০১৬ ও ২০১৭ সালে বেস্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা।

আইএনটিআই-এর ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট সোসাইটির প্রেসিডেন্ট উমাইর চৌধুরী বলেন, বেস্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে এ ইউনিভার্সিটিতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি প্রায় ৭০ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে পারস্পারিক ঐক্য ও সম্প্রীতির পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি বলেন, অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে আমাদের জাতিসত্তার প্রতীক আমাদের জাতীয় পতাকা। শ্রদ্ধা, গর্ব, ভালোবাসা সব মিলেমিশে একাকার আমাদের এই লাল-সবুজের পতাকায়। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এই লালসবুজ পতাকার দেশের ইতিহাস ঐতিহ্য তুলে ধরতে পেরে নিজেকে গর্ববোধ করছেন এ ছাত্রনেতা।

ব্যাচেলর ইন ইনফরমেশন টেকনোলজির ছাত্র ওয়ালিদ বিন নাসির বলেন, প্রবাসে এসে সবচেয়ে বেশি স্মরণ করি বাংলাদেশকে। বিদেশের মাটিতে দেশীয় সংস্কৃতি তুলে ধরাই আমাদের মূল লক্ষ্য। আমাদের পারফরম্যান্সের মধ্য দিয়ে বিদেশিরা আমাদের দেশ সম্পর্কে জানতে পেরেছে। এ ছাড়া বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের পতাকা উড়াতে পেরেছি সেটাই আমাদের তৃপ্তি।

ইউনিভার্সিটিতে অধ্যয়নরত নাবিলা ভূঁইয়া জানান, হল ভর্তি এতো এত বিদেশির সামনে লাল সবুজের পতাকাটা আমরা উড়িয়েছি। সকলে মুখরিত হয়েছে করতালিতে। আমার চোখের কোণে এক ফোটা জল অনুভব করেছি। গর্বের জল। আনন্দশ্রু।

অনুষ্ঠানের অর্গানাইজারের দায়িত্বে ছিলেন, ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট সোসাইটির প্রেসিডেন্ট উমাইর চৌধুরী ও ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট সোসাইটির মাল্টিমিডিয়া ডাইরেক্টর ওয়ালিদ চৌধুরী এবং ইভেন কো-অর্ডিনেটরের দায়িত্বে ছিলেন, মাশিয়াত প্রমুখ। আর পারফরমেন্সে ছিলেন, সায়েম, ফরহাদ, অমিত, সিয়াম, সাইফ, আনিকা, রিতি, উসমিলা প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *