আমাদের বিরুদ্ধে যারা অবস্থান নেবে, কেউই ছাড় পাবে না: ইরান


জবাবদিহি ডেস্ক : ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন অর্থনৈতিক যুদ্ধের মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ করেছে তেহরান। একইসঙ্গে ইসরাইলকে ইঙ্গিত করে যুদ্ধে সমর্থনকারী দেশগুলোকে সতর্ক করেছেন ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। ইরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা মোকাবিলায় শিগগিরই ইউরোপীয় পে-মেন্ট সিস্টেম চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস। অন্যদিকে, জাভেদ জারিফকে মিথ্যেবাদী আখ্যা দিয়ে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, কোনমতেই ইরানকে পরমাণু অস্ত্র নির্মাণ করতে দেবে না তার দেশ।

ইরানের সঙ্গে পাঁচ বিশ্বশক্তি ও জার্মানির পরমাণু চুক্তি রক্ষায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের তৎপরতার অংশ হিসেবে তেহরান সফরে জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস। ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির পাশাপাশি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফের সঙ্গে সোমবার বৈঠকে বসেন তিনি। পরে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ইরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা মোকাবিলায় কাজ করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

সংবাদ সম্মেলনে জাভেদ জারিফ বলেন, ইরানের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক যুদ্ধের মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করার পাশপাশি ইসরাইলসহ যুদ্ধে সমর্থনকারী মার্কিন মিত্র দেশগুলোকেও সতর্ক করেন তিনি। বলেন, ইরান কখনোই আগ বাড়িয়ে কোন দেশের সঙ্গে যুদ্ধে লিপ্ত হয়নি, ভবিষ্যতেও হবে না।

ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেন, ইসরাইল নিজেরা পরমাণু অস্ত্র নির্মাণ করে চললেও আমাদেরকে তারা নিষেধ করছে। এমনকি তাদের পরমাণু অস্ত্র দিয়ে আমাদের ধ্বংস করে দেয়ারও হুমকি দিয়েছে। এছাড়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক যুদ্ধের যে ঘোষণা দিয়েছেন তাতে করে মধ্যপ্রাচ্যে আরো সংকটের সৃষ্টি করবে। আমাদের বিরুদ্ধে যারা অবস্থান নেবে তাদের কেউই ছাড় পাবে না।

এদিকে, ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফকে মিথ্যাবাদী আখ্যা দিয়ে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, বিশ্বকে হুমকির মুখে ফেলে ইরানের এমন কোন পরমাণু কর্মসূচি সফল হতে দেবে না তেল আবিব।

ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, ইরান এমন একটি দেশ যারা প্রতিদিন সরাসরি আমাদের ধ্বংস করে দেয়ার হুমকি দেয়। ইরান সুরঙ্গ দিয়ে সিরিয়ায় সেনা পাঠানো অব্যাহত রেখেছে। আমি আবারো বলতে চাই, ইসরাইলের অস্তিত্ব হুমকিতে ফেলে ইরানের এমন কোন পরমাণু কর্মসূচি আমরা বাস্তবায়ন হতে দেব না।

এরমধ্যেই, জাতিসংঘের পরমাণু পর্যবেক্ষণ সংস্থা আইএইএ’র প্রধান ইয়ুকিয়া আমানোর অভিযোগ, আগের যে কোন সময়ের তুলনায় অনেক বেশি সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম উৎপাদন করছে ইরান। একইসঙ্গে এ বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

0 30

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আজকের সংবাদ শিরোনাম :
%d bloggers like this: