সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১

আখাউড়ায় এক ছিনতাইকারী আটক

১ min read

নিউজ ডেস্ক : আপনার প্রথম দেখায় মনে হবে কোনো পথযাত্রী রেলপথের পাশে দাঁড়িয়ে চলন্ত ট্রেন দেখছে। মুহূর্তে পাল্টে যায় তাদের চেহারা। একজন- দু’জন নয়, ওরা সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী।সুযোগ বুঝেই নেমে পড়ে ছিনতাই কাজে। ছোঁ মেরে কেড়ে নেয় মোবাইল ফোন, ব্যাগসহ ট্রেনযাত্রীর মূল্যবান সামগ্রী। অনেক সময় লাঠির আঘাতে মারাত্মক আহত হন ট্রেনযাত্রীরা।

আবার মালামালের সঙ্গে চলন্ত ট্রেন থেকে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে তাতে গুরুতর আহতও হয়েছেন কেউ কেউ।

চট্টগ্রাম-ঢাকা ও চট্টগ্রাম-সিলেট রেলপথের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার ‘নয়াদিল’ আউটার সিগনাল এলাকায় নির্মাণাধীন রেলওয়ে ব্রিজের কাছে আন্তঃনগর ও মেইল চলন্ত ট্রেনে এমন ঘটনা প্রায়ই ঘটছে।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী চট্টলা এক্সপ্রেস ট্রেনের দরজার পাশে দাঁড়িয়ে আরিফ বিল্লা নামে যাত্রী মোবাইলে কথা বলছিলেন। ট্রেনটি আখাউড়া রেলওয়ে জংশন স্টেশনে প্রবেশের আগে নয়াদিল এলাকার আউটার সিগন্যাল ব্রিজের কাছে আসামাত্র পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা এক ছিনতাইকারী ছোঁ মেরে তার মোবাইল ফোন টান দিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় মোবাইল ফোনসহ ওই যাত্রী চলন্ত ট্রেন থেকে ছিটকে নিচে মাটিতে পড়ে গুরুতর আহত হন। এ সময় ছিনতাইকারী স্থানীয় বাসিন্দা সাদ্দাম হোসেন দৌড়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহত ট্রেনযাত্রীকে উদ্ধার করে আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

আহত আরিফ বিল্লা কুমিল্লা চানপুর এলাকার কালাম কান্দি গ্রামের মৃত আব্দুল জলিল মিয়ার ছেলে। এ ঘটনার খবর পেয়ে আখাউড়া রেলওয়ে থানার ওসি শ্যামল কান্তি দাস আহত ট্রেনযাত্রীকে চিকিৎসা দেন এবং তার স্বজনদের খবর দিয়ে আরিফকে তুলে দেন।

পরে বুধবার সকালে অভিযান চালিয়ে ছিনতাইকারী সাদ্দামকে নয়াদিল এলাকা থেকে আটক করে আখাউড়া রেলওয়ে থানা পুলিশ।

স্থানীয়দের অভিযোগ, দিনেও এলাকাটি ট্রেন যাত্রীদের কাছে আতঙ্ক এবং অনিরাপদ। ওই ছিনতাই ঘটনা ছাড়াও একই স্থানে কয়েকদিন আগে চলন্ত ট্রেন থেকে এক ট্রেনযাত্রীকে মোবাইল ফোনসহ টেনে নামিয়ে মাটিতে ফেলে আহত করে স্থানীয় দুর্বৃত্তরা।

আখাউড়া রেলওয়ে থানার ওসি শ্যামল কান্তি দাস বলেন, নয়াদিল আউটার সিগন্যালের কাছে নির্মাণাধীন রেল সেতুর কাজ চলছে। এ স্থানটিতে আখাউড়া হয়ে চট্টগ্রাম-ঢাকা ও আখাউড়া হয়ে চট্টগ্রাম-সিলেট রেলপথে চলাচলকারী আন্তঃনগর ও মেইল ট্রেনসহ সব ট্রেন ধীরগতিতে চলে। এ সুযোগে আটককৃত সাদ্দামসহ স্থানীয় কিছু পেশাদার ছিনতাইকারী জানালা কিংবা ট্রেনের দরজায় দাঁড়িয়ে কথা বলার সময় যাত্রীদের মোবাইল ফোন ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *