আগস্ট ১, ২০২১

অতিথি বরণে প্রস্তুত হচ্ছে ঢাকা

১ min read
অতিথি বরণে প্রস্তুত হচ্ছে ঢাকা

অতিথি বরণে প্রস্তুত হচ্ছে ঢাকা

১৭-২৬ মার্চ সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান

বিশেষ প্রতিনিধি : আগামী ১৭ মার্চ থেকে অনুষ্ঠিতব্য স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ অনুষ্ঠানমালায় অংশ নিচ্ছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রীসহ দক্ষিণ এশিয়ার পাঁচ জন রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান। টানা ১০ দিনব্যাপী আয়োজনে বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে আরও বেশ ক’জন অতিগুরুত্বপূর্ণ (ভিভিআইপি) ব্যক্তির সশরীরে যোগদানের কথা রয়েছে। পুরো আয়োজন সফল করাসহ ভিভিআইপিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রাজধানীতে ইতোমধ্যেই তৎপরতা শুরু করেছে আইনশৃংখলা বাহিনী ও গোয়ন্দাসংস্থা।

এছাড়া আগামী ২৬ মার্চ পর্যন্ত দেশের ইউনিয়ন পর্যায়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপনে সব প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

চলমান করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পুরো আয়োজন সম্পন্ন করা হবে। স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিকে, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানের ১০ দিন রাজধানীতে রাজনৈতিক ও সামাজিক কর্মসূচি না রাখতে সবাইকে আহ্বান জানিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

অন্যদিকে, জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আগামী ১৭ মার্চ রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে শপিংমল-দোকানপাট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংশ্লিষ্ট সমিতি।

করোনার কারণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের সময় চলতি বছরের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ায় সরকার। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের লক্ষ্যে সরকার ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ পর্যন্ত সময়কালকে মুজিববর্ষ হিসেবে ঘোষণা করে। মুজিববর্ষ উদযাপনের লক্ষ্যে গৃহীত কর্মসূচিগুলো কভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারির কারণে নির্ধারিত সময়ে যথাযথভাবে পালন করা সম্ভব হয়নি। এ কারণে সরকার মুজিববর্ষের সময়কাল ২০২১ সালের ২৬ মার্চ থেকে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়াল।

দশ দিনের অনুষ্ঠানে ৪ দিন অতিথিদের সরাসরি অংশগ্রহন থাকবে। বাকি ৬দিন ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানমালা চলবে। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের সঙ্গে অবশ্যই ‘করোনা নেগেটিভ’ সনদ নিয়ে আসতে হবে।

ইতোমধ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে, নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভান্ডারি, ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিয়েল ওয়াংচুক ও মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইবরাহিম মোহামেদ সলিহ এ পাঁচজন রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান মুজিববর্ষ ও সুবর্ণজয়ন্তীতে অংশ নিতে ঢাকায় আসবেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এছাড়া অনুষ্ঠানে সরাসরি যোগ দিতে না পারলেও চীনের প্রেসিডেন্ট, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ও কানাডার প্রধানমন্ত্রী ভিডিও বক্তব্য পাঠাবেন বলে দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে। চীনা প্রেসিডেন্টের বার্তা নিয়ে দেশটির একজন মন্ত্রী পর্যায়ের প্রতিনিধি ঢাকায় আসবেন।

এদিকে, সুইডেনের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন মন্ত্রী পের ওলসন ফ্রিধ এক সপ্তাহের সরকারি সফরে গত শনিবার থেকে ঢাকায় অবস্থান করছেন। তিনিও সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করবেন।

অন্যদিকে, গতকাল রোববার এক সাংবাদিক সম্মেলনে ডিএমপি’র অতিরিক্ত কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত কমিশনার) মনিরুল ইসলাম বলেন, মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে আগামী ১৭ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত রাষ্ট্রীয় নানা কর্মসূচি থাকবে। তবে রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের কর্মসূচি পুলিশের পক্ষ থেকে ‘ডিসকারেজ’ করছি। এ সময় অনিবার্য না হলে যেন কোনও কর্মসূচি না রাখে এবং কোনো কর্মসূচি দেয়া থাকলে তা প্রত্যাহার করার অনুরোধ করেছেন পুলিশের এ কর্মকর্তা।

ঢাকা নগরে নানা উন্নয়ন প্রকল্প চলার মধ্যে ওই দুইটি অনুষ্ঠানের কারণে ট্রাফিক চলাচলে বিঘ্ন ঘটবে ও নগরবাসীর সমস্যার হবে উল্লেখ করে মনিরুল ইসলাম বলেন, পাশাপাশি ভিভিআইপিরা বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন। সেই কারণে এ সময়ে নগরবাসী যারা ঘরের বাইরে কোথাও যাবেন, সেক্ষেত্রে কিছুটা সময় নিয়ে বের হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। এ সময় ট্রাফিক দুর্ভোগ কমাতে যথাসাধ্য চেষ্টা করার প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি।

বিদেশি অতিথিদের নিরাপত্তার বিষয়ে জানতে চাইলে মনিরুল বলেন, দেখুন-এটা সরাসরি নিরাপত্তা ব্রিফিং যদিও নয়, তথাপি আমরা বলছি যে নিরাপত্তা বিষয়ে ‘কম্প্রোমাইজ’ করার কোনো সুযোগ নেই। অতিথিরা যে সমস্ত অনুষ্ঠানে যাবেন এবং যেখানে অবস্থান করবেন, সেসব জায়গায় ভিভিআইপি নিরাপত্তার যে প্রটোকল আছে, সেই অনুযায়ী নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফরের বিরোধিতা যারা করছেন, তাদের বিষয়ে মনিরুল বলেন, আমরা আশাবাদী তাদের শুভবুদ্ধির উদয় হবে। দেশের ‘সুনাম’ ক্ষুন্ন হয় এমন কাজ যদি কেউ করে, ‘দেশবিরোধী’ কর্মকান্ড করার চেষ্টা করে তাহলে ঢাকা মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে শক্ত হাতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এলো ‘মুজিব ১০০’ অ্যাপ : এদিকে, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মাঝে বঙ্গবন্ধুর দর্শন ও সংগ্রামমুখর জীবনের ইতিহাস তুলে ধরার লক্ষ্যে আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে নির্মিত হয়েছে ‘মুজিব ১০০’ অ্যাপ। রোববার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক অনলাইন প্লাটফর্মে অ্যাপটি উদ্বোধন করেন।

অ্যাপটি সম্পর্কে প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দেয়া এই অ্যাপের অন্যতম লক্ষ্য। বঙ্গবন্ধুর জীবদ্দশায় দেয়া সব ভাষণ, বঙ্গবন্ধুর লেখা বই এবং তাঁর জীবনের নানা ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে সাজানো টাইমলাইন প্রভৃতি কন্টেন্ট দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এ অ্যাপটি।

শপিং মল-দোকান বন্ধ থাকবে বুধবার : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী বুধবার (১৭ মার্চ) সারাদেশের সব শপিং মল, মার্কেট ও দোকান বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি। গতকাল গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *