ভারতের টার্গেট ২২৮


স্পোর্টস ডেস্ক : ভারতের বিপক্ষেও শুরুটা ভালো হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকার। ২৩ ওভারের মধ্যেই পাঁচ উইকেট পড়ে যায় তাঁদের। ১৫৮ রানে পড়ে যায় সাত উইকেট। সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন মরিস। তাঁকে সহযোগিতা করেন রাবাদা।

৫০ ওভারে নয় উইকেটে ২২৭ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা। শেষদিকে ৩৪ বলে ৪২ রান করেন মরিস। পরে ভুবনেশ্বরের বলে কোহলির কাছে ক্যাচ দেন তিনি। রাবাদা অপরাজিত ছিলেন ৩১ রানে।

প্রথম ১১ ওভারে ৩৯ রানেই দুই উইকেট নাই দক্ষিণ আফ্রিকার। বুমরাহর বলে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরত গেছেন হাশিম আমলা ও কুইন্টন ডি কক।

একটু থিতু হয়ে আসার পর ফাফ ডু প্লেসি আর ডুসেনকে বোল্ড করেন চাহাল। ফাফ ৩৮ রান করেন এবং ডুসেন করেন ২২। পরে ২২তম ওভারে ডুমিনিকে এলবিডব্লিউ করেন কুলদীপ যাদব। মাত্র তিন রানেই ফেরত যান তিনি।

ভারতীয় বোলারদের মধ্যে চাহাল চারটি উইকেট নিয়েছেন। ফাফ, ডুসেনের পরে মিলার ফেলুকাওকেও ফেরত পাঠান চাহাল। দুইটি করে উইকেট নিয়েছেন ভুবনেশ্বর, বুমরাহ।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের সঙ্গে হারের পর বাংলাদেশের কাছেও পরাজিত হয়েছে ফাফের দল। এই অবস্থায় ভারতের সামনে পড়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। টসে জিতে ব্যাটিং নিলেও শুরুটা ভালো হয়নি আমলা-ডি ককদের।

আউট হওয়ার আগে আমলা করেছেন ছয় রান। ডি কক করেছেন ১০ রান।

সাউদাম্পটনের রোজ বোল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আজ মুখোমুখি হয়েছে বিরাট কোহলির ভারত ও ফাফ ডু প্লেসির দক্ষিণ আফ্রিকা। বিশ্বকাপের অষ্টম ম্যাচে প্রথমবারের মতো খেলতে নামছে ভারত। অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকা আজ তাদের তৃতীয় ম্যাচ খেলবে।

আজকের ম্যাচের আগে বিশ্বকাপে চারবার মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। জয়ের পাল্লা ভারী প্রোটিয়াদের। তিনবার জয় পেয়েছে তারা। অবশ্য দুই দলের সর্বশেষ লড়াইয়ে জয় পেয়েছে ভারত। গত বিশ্বকাপে (২০১৫ সালে) দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১৩০ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল ভারত।

0 30

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
আজকের সংবাদ শিরোনাম :
%d bloggers like this: