ট্রাম্প ও লন্ডন মেয়র সাদিক খানের মধ্যে কেন এই বাকযুদ্ধ?


জবাবদিহি ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তিনদিনের এক রাষ্ট্রীয় সফরে আজ (সোমবার) যুক্তরাজ্যে আসবেন। তবে তার পৌঁছানোর আগে থেকেই লন্ডনের মেয়র সাদিক খানের সাথে নতুন করে শুরু হয়েছে তার বাকযুদ্ধ।

অবশ্য এই বাকযুদ্ধ পুরোটা অনলাইনে, কারণ ট্রাম্পের এই সফরের সময় তার সাথে সাদিক খানের কোথাও সামনাসামনি দেখা হবে না।

কয়েক দিন আগেই লন্ডনের মেয়র সাদিক খান ‘নারী ও ইসলাম সম্পর্কে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভুল ধারণার’ তীব্র সমালোচনা করে তাকে ‘বিংশ শতাব্দীর ফ্যাসিস্টদের’ সাথে তুলনা করেন।

তা ছাড়া ট্রাম্পের লন্ডনে অবতরণের দিনেই ব্রিটিশ পত্রিকায় সাদিক খানের একটি নিবন্ধ বেরোয় যাতে তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্টের তীব্র সমালোচনা করেন।

এর জবাবে ট্রাম্প এক টুইটে বলেন, সাদিক খান একজন ‘স্টোন-কোল্ড লুজার’ অর্থাৎ এমন একজন লোক যিনি সব সময়ই পরাজিত হন। তিনি বলেন, খানের উচিত লন্ডনে অপরাধ কমানোর দিকে নজর দেওয়া।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার টুইটে সাদিক খানের পদবী ‘খান’ শব্দটি লেখেন ভুল বানানে। তাতে তিনি বলেন, খান আমাকে আমাদের নিউইয়র্ক শহরের ‘নির্বোধ এবং অযোগ্য’ মেয়র দা ব্লাসিও-র কথা মনে করিয়ে দেয় – যে তার কাজে মোটেও ভালো করছে না এবং তার উচ্চতা ব্লাসিওর অর্ধেক।

মেয়র সাদিক খানের একজন মুখপাত্র প্রেসিডেন্টের এসব প্রতিক্রিয়াকে ‘শিশুসুলভ’ বলে বর্ণনা করেন।

অবশ্য বিল দা ব্লাসিও নিজে কিন্তু ট্রাম্পের এই সমালোচনার জবাবে সাদিক খানের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তিনি পাল্টা এক টুইটে বলেন, তিনি সাদিক খানের একজন ভক্ত এবং তার সাথে তুলনা করা হলে তিনি সম্মানিত বোধ করেন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প ও সাদিক খানের মধ্যেকার বৈরিতা বহু পুরনো। ২০১৬ সালে ট্রাম্প লন্ডনের নবনির্বাচিত মেয়র সাদিক খানকে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন যেন তিনি একটি আইকিউ বা বুদ্ধিবৃত্তির পরীক্ষা দেন।

লন্ডন ব্রিজ ও বারা মার্কেটে ২০১৭ সালের সন্ত্রাসী আক্রমণের পর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাদিক খানের আচরণকে ‘দু:খজনক’ বলে আখ্যায়িত করেছিলেন।

জবাবে সাদিক খান বলেন, আমি ট্রাম্পকে লন্ডনের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে দেব না। গত বছর জুন মাসে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, সাদিক খান সন্ত্রাস দমনের ক্ষেত্রে খুবই খারাপ কাজ করেছেন।

সাদিক খান জবাবে বলেন, তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্পের এসব ‘পাশবিক’ অভিযোগের কোন জবাব দেবেন না।

এর আগে খান লন্ডনে ট্রাম্পকে ব্যঙ্গ করে তৈরি একটি অতিকায় বেলুন লন্ডনে ওড়ানোর অনুমতি দেন। এতে ট্রাম্পকে একটি বিকিনি পরা শিশু হিসেবে দেখানো হয়। তথ্যসূত্র: বিবিসি

0 30

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
আজকের সংবাদ শিরোনাম :
%d bloggers like this: