চীনা রফতানি পণ্যে শুল্ক বাড়ানো হবে: ট্রাম্প


জবাবদিহি ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, জি-টোয়েন্টি সম্মেলনের পার্শ্ববৈঠকে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তার সঙ্গে বৈঠক না করলে চীনা রফতানি পণ্যে শুল্ক আরো বাড়ানো হবে। সোমবার এনবিসি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে শি’র সঙ্গে বৈঠকের আগ্রহ প্রকাশ করে ট্রাম্প বলেন, সম্মেলনে ওয়াশিংটন-বেইজিং বাণিজ্য সঙ্কটসহ বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা হবে। আর মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেছেন, চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলেও তা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান সম্ভব।

চীনা রফতানি পণ্যে যুক্তরাষ্ট্রের দফায় দফায় শুল্কারোপের পরও থেমে নেই দেশটির বৈদেশিক বাণিজ্য। মে মাসে চীনের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩ লাখ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে। যা গেল এপ্রিলের তুলনায় ৬শ’ কোটি মার্কিন ডলার বা শূন্য দশমিক ২ শতাংশ বেশি। ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বের হয়ে যাওয়ার অনিশ্চয়তা এবং যুক্তরাষ্ট্রের শুল্কারোপের মধ্যেও নিজেদের বাণিজ্য ব্যবস্থা টিকিয়ে রাখতে এরইমধ্যে নানামুখী উদ্যোগ নিতে শুরু করেছে চীন। পণ্যের উৎপাদন ব্যবস্থায় সহজিকরণ ও নতুন নতুন বাজার তৈরিতে ব্যস্ত দেশটি।

এমন প্রেক্ষাপটে চীনের রফতানি পণ্যে আবারো শুল্কারোপের হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওয়াশিংটনে সাংবাদিকদের ট্রাম্প বলেন, আসন্ন জি-টোয়েন্টি সম্মেলনে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠকে আশাবাদী তিনি। ওই বৈঠকে চীনের সঙ্গে বাণিজ্যযুদ্ধ নিরসনসহ বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনার কথা জানান তিনি। তবে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং সম্মেলনে অংশ না নিলে বা বৈঠকে আগ্রহী না হলে আরো ৩০ হাজার কোটি ডলারের চীনা রফতানি পণ্যে নতুন করে শুল্কারোপের হুমকি দেন ট্রাম্প।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে আমার খুব ভালো সম্পর্ক রয়েছে। আমার মনে হয়, তিনিও সেটা জানেন। জি-টোয়েন্টি সম্মেলনে তার সঙ্গে আমার বৈঠকের কথা রয়েছে। ওই বৈঠকে দুই দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে। চীনের বিভিন্ন পণ্যে ২৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। যার সুফল আমরা এরইমধ্যে পেয়েছি। শুল্কারোপের কারণে আমাদের জিডিপি অনেক বেড়ে গেছে।

জাতীয় নিরাপত্তা হুমকি মুখে পড়ার আশঙ্কা থেকেই চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। ফক্স নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠানটির ওপর অবরোধ আরোপের কারণে, চীনের সঙ্গে যে সঙ্কট তৈরি হয়েছে তা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করতে চান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেন, হুয়াওয়ের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র থেকে অবাধে তথ্য সংগ্রহ করছে চীন। যা যুক্তরাষ্ট্র এবং আমাদের মিত্রদেশগুলোর জন্য চরম হুমকি। হুয়াওয়ের ওপর অবরোধ আরোপের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবো না আমরা। তবে আমি মনে করি, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এসব বিষয় নিয়ে চীনের সঙ্গে খোলামেলা আলোচনা করবেন।

এমন প্রেক্ষাপটে স্যামসাং, মাইক্রো সফট এবং ডেলসহ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বৈঠক করছে চীন সরকার। একে নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে স্বাভাবিক বৈঠক বলে দাবি করেছে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

0 30

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
আজকের সংবাদ শিরোনাম :
%d bloggers like this: